আয়াতুল কুরসি আরবি ও বাংলা উচ্চারণ অর্থসহ | Ayatul Kursi Bangla

আপনারা অনেকেই আয়াতুল কুরসি আরবি ও বাংলা উচ্চারণ খুঁজছেন। আপনি যদি এই দোয়াটি বা সূরাটি খুঁজে থাকেন তবে এই আর্টিকেলের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন। আপনারা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আয়াতুল কুরসির আরবি ও বাংলা উচ্চারণসহ পেয়ে যাবেন। এখান থেকে আপনি খুব সহজেই এই সুরাটির আরবি ও বাংলা উচ্চারণ এর করতে পারবেন। আপনি শুনে খুশি হবেন এই সূরায় অনেক ফজিলত রয়েছে তার নিচে এ আর্টিকেলটি পড়েই জানতে পারবেন।

বন্ধুরা, আয়াতুল কুরসি হলো পবিত্র কোরআন মাজিদে দ্বিতীয় সূরা আল-বাকারা ২৫৫ নং আয়াত। এই আয়াতটিকে বলা হয় আয়াতুল কুরসি। এই আয়াতটি সকল মুসলমানদের জানা উচিত কারণ সকল বিপদ থেকে রক্ষা পেতে এই দোয়া কাজ করে। নিচে এই আয়াতটির আরবি, বাংলা উচ্চারণ এবং অর্থসহ PDF দেওয়া হয়েছে।

আয়াতুল কুরসি

আয়াতুল কুরসি বাংলা উচ্চারণ:

আল্লা-হু লাইলা-হা ইল্লা-হুওয়া আল হাইয়ুল কাইয়ূমু লা-তা’খুযুহূ ছিনাতুওঁ ওয়ালা- নাওমুন লাহূ মা-ফিছ ছামা-ওয়া-তি ওয়ামা-ফিল আরদি মান যাল্লাযী ইয়াশফা’উ ‘ইনদাহূইল্লা- বিইযনিহী ইয়া’লামুমা-বাইনা আইদীহিম ওয়ামা-খালফাহুম ওয়ালা-ইউহীতূনা বিশাইইম মিন ‘ইলমিহীইল্লা-বিমা-শাআ ওয়াছি’আ কুরছিইয়ুহুছ ছামা-ওয়া-তি ওয়াল আরদা ওয়ালা-ইয়াঊদুহু হিফজু হুমা-ওয়া হুওয়াল ‘আলিইয়ূল ‘আজীম।

আয়াতুল কুরসি আরবি:


اَللهُ لآ إِلهَ إِلاَّ هُوَ الْحَىُّ الْقَيُّوْمُ، لاَ تَأْخُذُهُ سِنَةٌ وَّلاَ نَوْمٌ، لَهُ مَا فِى السَّمَاوَاتِ وَمَا فِى الْأَرْضِ، مَنْ ذَا الَّذِىْ يَشْفَعُ عِنْدَهُ إِلاَّ بِإِذْنِهِ، يَعْلَمُ مَا بَيْنَ أَيْدِيْهِمْ وَمَا خَلْفَهُمْ وَلاَ يُحِيْطُوْنَ بِشَيْئٍ مِّنْ عِلْمِهِ إِلاَّ بِمَا شَآءَ، وَسِعَ كُرْسِيُّهُ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ، وَلاَ يَئُودُهُ حِفْظُهُمَا وَ هُوَ الْعَلِيُّ الْعَظِيْمُ-

আয়াতুল কুরসির বাংলা অর্থ:

আল্লাহ ছাড়া কোন উপাস্য নেই, তিনি জীবিত, সবকিছু ধারক। তাকে তন্দ্রাও স্পর্শ করতে পারেনা এবং নিদ্রাও নয়। আসমান ও জমিনে যা কিছু রয়েছে, সবই তার। কে আছো এমন, যে সুপারিশ করবে তার কাছে তার অনুমতি ছাড়া? দৃষ্টির সামনে বা পেছনে যা কিছু রয়েছে সবই তিনি জানেন।

তার জ্ঞান সীমা থেকে তারা কোন কিছুকেই পরিবেষ্টিত করতে পারেনা, কিন্তু যতটুকু তিনি ইচ্ছা করেন। তার সিংহাসন সমস্ত আসমান ও যমীনকে পরিবেষ্টিত করে আছে। আর সেগুলোকে ধারণ করা তার পক্ষে কঠিন নয়। তিনি সর্বোচ্চ এবং সর্বাপেক্ষা মহান।

আয়াতুল কুরসি বাংলা উচ্চারণ ছবি

আয়াতুল কুরসি বাংলা উচ্চারণ ছবি

আয়াতুল কুরসি ফজিলত

প্রত্যেক ফরজ নামাজের পরে আয়াতুল কুরসি একবার করে পাঠ করতে হবে।

রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন-” যে ব্যক্তি ফরজ নামাজের পরে প্রতিদিন আয়াতুল কুরসি একবার করে পাঠ করবে তার জন্য জান্নাতে প্রবেশ করার জন্য মৃত্যু ছাড়া আর কোন বাধা থাকে না।”

রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন- “যে ব্যক্তি সকালে আয়াতুল কুরসি পাঠ করবে তাকে সকাল হতে সন্ধ্যা পর্যন্ত জিনদের থেকে রক্ষা করা হবে। এবং যারা সন্ধ্যার সময় আয়তুল কুরসী পাঠ করবে তাদের সন্ধ্যা থেকে সকাল পর্যন্ত জিনদের থেকে রক্ষা করা হবে।”

আয়াতুল কুরসি শোয়ার সময় পাঠ করলে সকাল পর্যন্ত তাকে একজন ফেরেশতা তার হেফাযতের জন্য পাহারা দেয়। যাতে শয়তান তার কাছে ভিড়তে না পারে।

আয়াতুল কুরসি FAQs

আয়াতুল কুরসি এর মানে কি?

আয়াতুল কুরসি (আরবি: آية الكرسي‎‎ আয়াত আল-কুরসি, অর্থ: “সিংহাসনের স্তবক”) হচ্ছে কুরআনের দ্বিতীয় সূরা আল-বাকারার ২৫৫তম আয়াত (২:২৫৫)।

আয়াতুল কুরসি কত নম্বর আয়াত?

আয়াতুল কুরসি হলো পবিত্র কোরআন মাজিদে দ্বিতীয় সূরা আল-বাকারা ২৫৫ নং আয়াত।

আয়াতুল কুরসি পড়ে নামাজ পড়া যাবে কি?

রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন-” যে ব্যক্তি ফরজ নামাজের পরে প্রতিদিন আয়াতুল কুরসি একবার করে পাঠ করবে তার জন্য জান্নাতে প্রবেশ করার জন্য মৃত্যু ছাড়া আর কোন বাধা থাকে না।”

উপসংহার: তো বন্ধুরা আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছন আয়াতুল কুরসি পাঠের কত ফজিলত। আপনারা যদি সূরা এর সঠিক উচ্চারণে পাঠ না করতে পারেন তাহলে আপনারা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এই আয়াত বা সূরা বাংলা ও আরবি উচ্চারণ অর্থসহ পিডিএফ ডাউনলোড করে এটি মুখস্ত করে প্রতিদিন পাঠ করবেন। আয়তুল কুরসি পাঠের ফলে অনেক ফজিলত রয়েছে আশা করছি যেগুলো আপনারা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জানতে পেরেছেন। আসসালামু আলাইকুম।

Hello! I am Khandakar Noymul Haque a Professional Blogger. I Love to Travel and My Favorite Person is My Wife. As a Professional Blogger, I Combine My Skills And Creativity to Create High-Quality, Informative Blog Posts.